About Me

Born on the auspicious day of 26th March 1974, Barrister M. AnamulKabirEmon and obtainedhis LL. B (Hon’s)from University of Wolverhampton UK and later called to the Bar of England and Wales from the Honorable Society of Lincoln’s Inn in 2001. The periods of 1998 – 1999 and then from 2004 onwards Barrister M. Anamul Kabir Emon had been associated and practiced in the chambers Sirajul Huq and Associates with Senior advocate and Hon’ble Law Minister Anisul Huq.

In August of 2004, Barrister Emon permanently returned to Bangladesh so as to actively contribute to the efforts undertaken by the Icon of Democracy, our Leader, Sheikh Hasina against the extreme radicalization, terrorism and social disorder perpetrated during Khaleda Zia’s rule. As such he participated in the movement against the Khaleda-Nizami government as a member of Awami Jubo League Central Working Committee.

During the strenuous days of the emergency period in 01/11, when our esteemed leader Sheikh Hasina was imprisoned, Barrister Emon was directly and actively involved in organizing her representation and conducting her cases through the Canadian International lawyer Payam Akhavanand, William Sloane in Bangladesh. He also played an effective role in portraying to the international community the human rights violations that were taking place under the emergency government. He himself and his family personally suffered and were harassed during that period because of his public and open stance against the emergency.

When the Honorable Prime Minister formed government and initiated the trial of the heinous murder of the Father of the Nation, Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and his family, in order to establish rule of law back in the country, Barrister Emon assisted in that litigation and undertook full responsibility as the Assistant Attorney General.

In 2011 Barrister Emon became the Convener of the Sunamganj Jubo League and structured the organization. In 2012 the Hon’ble Prime Minister appointed him as the District Administrator of Sunamganj District. While being in office, he took steps to increase revenue and enhance the ICT, Math and English education of the District as well as revive the values of our Independence. In that perspective, he released himself from the post of District Administrator Later on, in the greater interest of the Party, Barrister Emon stepped aside and refrained from contesting the general Parliament elections from Sunamganj-4 thus making way for the party nominated candidate to be elected as member of Parliament uncontested. He also being an independent Director of Power Grid Company of Bangladesh (PGCB) for the period of 2009 to 2018 to overcame the electricity challenge of Bangladesh. Now holding as an Independent Director of Electricity Generation Company of Bangladesh (EGCB).

Currently, Barrister Emon is holding responsibility for the Bangladesh Awami League of Sunamganj District General Secretary, carrying the ideals of the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman in his heart.

 

FATHER: Late Abdur Rois

Inducted into politics from early life, Late Advocate AbdurRais was elected Member of Parliament twice from Sunamgonj-3. From 1970 and 1973, he was the General Secretary of the Sunamgon jMohukama Awami League, and from 1973 till his death he was the Sunamgonj District Awami League President. During the war of liberation in 1971 he was the organizer of the freedom fighters in his area. After the massacre on 15th August 1975 he was imprisoned for long and tortured. In 1979 again he was imprisoned by the Illegitimate Zia government.

 

MOTHER: Rafiqa Chowdhury

In addition to her responsibilities as a homemaker, Rafiqa Chowdhury was also avidly involved in politics with the Awami League. In 1979 she was the chairperson of the Sunamgonj District MohilaAwami League. She was a successful organizer and the secretary of the SunamgonjMohilaSamity as well as the co-chairperson of the SunamgonjMohila Welfare Centre. She passed away on 11th November, 2013.

 

MATERNAL UNCLE : Late Hannan Choudhury (former District Judge)

Late Hannan Chowdhury was a freedom fighter and the Commander of Sector 11. He was also the Law Secretary in the 1971 Mujib Nagar Government.

 

Spouse

Wife Dr. Barrister FarzanaShila in engaged in law profession in Bangladesh Supreme Court.She obtained LL. B (Hon’s) from University of Wolverhampton UK and later called to the Bar of England & Wales from Honorable Society of Lincoln’s Inn. She also did her LL.M and Ph.D. Degree from UK on (Human Rights in women). At present she is the chairperson of Nandonic Foundation of Bangladesh. Only daughter RavipriyaKabir is studying in S.F.X. Greenherald International School in Class IX.

 

Early Life Politics

Even as a student, Barrister Emon was actively involved in politics, naturally considering the background and family tradition. He played a considerable role in the movement against the autocratic regime in 1990. He was elected with a large majority of votes in the Students’ Assembly of the Sunamgonj Government College contesting under the banner of Bangladesh Chhatra League. While studying for the Bar in UK, he was the coordinator of the Central Committee of Bangladesh Jubo League, and as such he took part in the movement against the then BNP-Jamaat government. In 2013 he became the Jubo League Presidium member.

 

Role of special national work: 

  • Assistant Attorney General of Bangubandhu Murder case. 
  • Special lawyer for prisoner Exchange of Bangladesh & India (Anup Chatia).
  • As a Special lawyer of Moulana Allama Shofi for relation development of Icon leader Honorable Prime Minister Sheikh Hasina to achievement the Kwami Madrasha Master Certificate.
  • Special Lawyer of Bangubandhu Satellite 1.
  • Legal Advisor of Prime Minister Sheikh Office under the project of Access to Information (A2i). 
  • Lawyer of contempt petition against the David Bargmen in ICT (International Criminal Tribunal) court in 2015. 
  • Role of Special work in Power Division, PGCB, EGCB and BPDB.

 

Writ on false news spread on Al Jazeera :

I filed a writ petition in the High Court (Writ Petition No. 1839/2021) seeking directions to remove the report from all online platforms, including YouTube, Twitter and Face book, on the controversial Qatar-based news outlet Al Jazeera. After a lengthy hearing with six ‘Amicus Curiae’ the Hon’ble Court directed the BTRC to remove the “ All the Prime Minister’s Man” from online platforms.

 

Power Development:

  • As a Director of the Power Grid Company of Bangladesh Ltd. and as a Chairman of legal affairs in implementation of 500MW HVBC Substation project of Bangladesh India with the Siemens German Inspection and BPDP with them the NTPC India the power station contract of 2600 M. W. successfully implemented that.
  • In execution of PGCB and KFW contract as a representative of PGCB in German with KFW for execution of loan agreement provide all over cooperation.
  • Went Japan, Switzerland, Korea, Germany, and Canada for different time as a Director of PGCB to inspect transformer, Digital Meter etc. 
  • In Sunamganj the Power substation of which at my proposal with the instruction of honorable Prime Minister the PGCB started their activities for construction of 133/32 Kilovolt Grid Sub Station, after long waiting on 5th February, 2019 with inauguration the problems of electricity of the people of Sunamganj was solved.

 

As the administrator of Sunamganj District Council the strong role as a Local Government:

Barrister M. Anamul Kabir Emon was a Youngest District Administrator ever in Bangladesh. After being appointed as administrator to build up Sunamganj as an aesthetic Sunamganj as per 5 the ideal of father of the nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and being motivated with the filling of liberation war with increasing the Govt. revenue in various developing service work got the glorification. After appointment in District Council in the first fiscal year 2013-14 increased the revenue of about Tk. 80 lac. Later in the fiscal year 2015-2016 in various market and joint venture project the revenue income of district council was increased Tk. 1.50 crore and a planning of permanent increase of revenue of Tk. 120 crore was implemented. 

  • With the installation of I.T training in 2 fiscal year 700 students were given training and later from the revenue of District Council in every year to 2000 students for their IT training big Lab was established. 
  • Establishment of sewing machine training center. 
  • Establishment of electricity trade center.
  • Taking of measure for providing of stipend to meritorious students. 
  • Correct Bengali pronunciation training, Azan and Kerat Training. 
  • Driving training.
  •   Earning & learning training. 
  • With the foreign donation and arrangement of District council cricket training camp of international standard.

 

Special activities during the time of working as an administrator of District Council:

1. The assurance of honorable Prime Minister Sheikh Hasina “Maheshkhola Freedom Fighters Memorial” and “TekerGhat Memorial” construction. 2. Construction of Moral with symbol of Bangabandhu in Sunamganj District Council with a figurine stone of esthetic Sunamganj. 3. Near to Sunamganj Town towards Ahsan Mara Bridge the construction of freedom fighter sculpture. With Jagannathpur to center Shahid Miner and in various educational institution construction of 16 Shahid Miner. 5. In the Dolua mass graveyard construction of symbol of freedom fighter. 6. with the finance of District Council construction of freedom of stage with the symbol of BangabandhuSheihMujibur Rahman and Sheikh Hasina. 7. The epitaph of flak singer Shah Abdul Karim as under construction. 8. A Nandonic stage in front of traditional museum of Sunamganj the proposed esthetic hurst. 9. In the SadarUpazila in front of Ali Madrasha the renovation of mosque. 10. Under the Sadar Upazila in Ibrahimpur and Hason Nagar construction of Jame 6 Mosque. 11. In the Derai Upazila construction of women hostel and temple. 12. In the Sadar Upazila construction of central bus terminal proposed market. 13. In the district council premises the under construction of lily garden. 14. With the eye catching passenger shade in Biswambarpur Upazila construction of 18 passenger shade. 16. Preservation gipsy village.

 

Special Merits: 

  • Achieve certificate Asian Institute of Technology (AIT) in Vietnam of Management & Administration of Local Government Institutions held in Turkey, Switzerland, Italy and Greece from 26 April to 2 May 2013. 
  • Achieve certificate Management & Administration of Public Policies for participation in one- day Executive Course held at the Graduate Institute, Geneva. 
  • During stay in London in the year 2001 as a best corporate advisor of British Gas Company received the golden cup. In the school life in various competition of drawing, recitation, Gazal, debate, science fair got first prizes. 
  • Chief Executive Officer (CEO) of Nandonic Foundation Bangladesh establishing an organization through which provide education and other facilities to poor children. Specially provide economic support to poor and helpless women and also work for the common people.
  • As a Vice President of Legal Assistant to Helpless Prisoner (LAHP) a NGO which deals with poor and uneducated people who are helpless either of their financial condition or because of their ignorance of the law for providing them with legal assistance for securing justice, to conduct research in the legal and social discipline for assisting in the updating of laws of the country with the changing social realities and to work among the citizens and society for awareness and respect of the country’s laws and regulations.

 

Experience of Abroad:

Since 2003 to 2004 I had been working in Malik & Michael Solicitor. This is one of the reputed law firms in the UK. The main areas of practices are Immigration law, banking and finance, Property & Housing Law, Family law, Convincing Law and Corporate Law. 7 Principal Advisor of “Six Continents Migration Services”. This is one of International immigration law firm in Bangladesh. The immigration firm deals with UK and Australia Immigration. It has several branches in UK and Bangladesh.

ব্যারিষ্টার এম. এনামুল কবির ইমন
জন্ম ২৬ মার্চ, ১৯৭৪ সাল। ২০০১ সালে যুক্তরাজে’র লিংকনস্ ইন থেকে বার-এট-ল ডিগ্রী লাভ করি। ১৯৯৮ সাল হইতে ১৯৯৯ এবং ২০০৪ হইতে সিরাজুল হক এন্ড এসোসিয়েটস এ সিনিয়র আইনজীবি বর্তমান মাননীয় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এর সাথে জুনিয়র হিসেবে কাজ করি। ২০০৪ সালে খালেদা জিয়া সরকার এর সময় নৈরাজ ̈ বোমাবাজী ও মৌলবাদের উত্তালে যখন বাংলাদেশ বিভীষিকাময় ক্রান্তিকাল সেই সময় গণতন্ত্রের মানষকণ্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে ২০০৪ সালের আগষ্ট মাসে বাংলাদেশে ̄ স্থায়ীভাবে আগমন করি। ২০০৪ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যকারী কমিটির সদস ̈ হিসাবে খালেদা নিজামী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রামে অংশ গ্রহণ করি। জননেত্রী শেখ হাসিনা ১/১১ এর সময় কারাগারে বন্দী থাকা অবস্থায় কানাডীয়ান আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনজীবি পায়াম আখাবা ও উইলিয়াম কে বাংলাদেশে এনে মামলা পরিচালনা করা ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ১/১১ এর মানবতাবিরোধী কর্মকান্ড তুলে ধরার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করি। আমার এই বলিষ্ঠ ভূমিকার কারণে নিজেও ১/১১ এর সময় নির্যাতিত হই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমান সরকার গঠনের পর দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে ̈ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার বর্গের নৃশংস হত্যা মামলার রায় কার্যকর করার উদ্যোগ নেন। উক্ত বঙ্গবন্ধুর হত্যা মামলায় সরকার কর্তৃক নিয়োজিত সহকারী এটর্নী জেনারেল হিসেবে নিষ্ঠার সাথে মামলা পরিচালনা করি । ২০১১ সালে সুনামগঞ্জ যুবলীগের আহবায়ক হয়ে সুনামগঞ্জের যুব সমাজকে সংগঠিত করি এবং ২০১২ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হয়ে জেলা পরিষদ সুনামগঞ্জ এর রাজস্ব বৃদ্ধি এবং ICT English এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধকে জাগ্রত করার লক্ষে এবং বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড জেগে উঠো নান্দনিক সুনামগঞ্জ, জেগে উঠো শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ” এর স্লোগানে সর্বপরি সুনামগঞ্জবাসীর মুল লক্ষ ̈কে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করি। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার হিসাবে দায়িত্ব পালন করি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালে জাতীয় দশম সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৪ আসন থেকে আওয়ামী লীগ এর প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রদান করেন। সেই প্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক এর দায়িত্ব পালন থেকে অব্যাহতি গ্রহণ করি। পরবর্তীতে জাতীয় বৃহৎ স্বার্থে নির্বাচন থেকে সরে গেলে জাতীয় পার্টির মনোনিত প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাংসদ হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুনামগঞ্জ জেলা ২ শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করি (২০১৬-ফেব্রুয়ারী ২০২৩)। বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস হিসেবে দায়িত্বে আছি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুনামগঞ্জ জেলার সহ-সভাপতি পদে দায়িত্বে আছি।

পিতা : মরহুম আব্দুর রইছ :
শৈশব থেকেই রাজনৈতিক আবহে বাবা মরহুম এডভোকেট আব্দুর রইস সুনামগঞ্জ-৩ আসন থেকে দু’দুবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৬৭-১৯৭৩ সাল পর্যন্ত সুনামগঞ্জ মহুকমা আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক ও ১৯৭৩-১৯৮৮ সাল পর্যন্ত আমৃত্যু সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৭১: মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক।
১৯৭৫: ১৫ই আগষ্টের পরবর্তী সময় দীর্ঘদিন কারাভোগ এবং নির্যাতিত হন।
১৯৭৯: বেআইনী সরকার খুনি জিয়া দ্বারা আবার কারাভোগ করেন এবং নির্যাতিত হন।

মাতা: রফিকা চৌধুরী :
মা রফিকা চৌধুরী সাংসারিক দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি শুরু থেকেই আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। তিনি ১৯৭৯ সাল থেকে সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি একজন সফল সংগঠক। তিনি সুনামগঞ্জ মহিলা সমিতির সম্পাদিকা, সুনামগঞ্জ মহিলা কল্যাণ কেন্দ্রের সহ-সভানেত্রী। তিনি ১১ই নভেম্বর ২০১৩ ইং তারিখে মৃতু ̈ বরণ করেন।

মামা : মরহুম হান্নান চৌধুরী (সাবেক জেলা জজ) :
মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি ১১ নং সেক্টরে একজন কমান্ডার হিসেবে দায়িত্বের সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধ করেন। ১৯৭১ সালে মুজিবনগর সরকারের আইন সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

ছাত্র ও যুব রাজনীতি :
১৯৯০ সালে কলেজে পড়াশুনার পাশাপাশি সক্রিয় হই ছাত্র রাজনীতিতে এবং ১৯৯০ এর সৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করি এবং পুলিশী হামলায নির্যাতিত হই। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ এর ব্যানারে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হই। যুক্তরাজ্যে ২০০২ সালে বার-এট-ল অধ্যয়নরত সময়ে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সদস্য হয়ে সমন্বয়কারী হিসেবে যুক্তরাজ্য যুবলীগের কর্মকান্ড পরিচালনা করি এবং তৎকালীন সময়ে বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের বিরুদ্ধে সমস্ত আন্দোলন পরিচালনা করি। পরবর্তীতে ২০১৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার হিসাবে দায়িত্ব পালন করি।

প্রবাসে কর্ম অভিজ্ঞতা
বিলেতে ব্যারিষ্টার ডিগ্রি নেয়ার পর Malik and Michael Solicitors নামক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে আইন কর্মকর্তা হিসেবে ইমিগ্রেশন আইন, কনভেনসিং, ব্যংক-কোম্পানী আইন এ সফলতার সাথে কাজ করি এবং Uk Becton Television এ ইমিগ্রেশন আইন সম্পর্কিত সরাসরি সম্প্রচারিত অনুসন্ধানে Advice করি যা পরবর্তীতে Uk এর বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রিন্টএন্ড মিডিয়ায় বিশেষ স্থান দখল করে।

১/১১ তে ভূমিকা :
জননেত্রী শেখ হাসিনা ১/১১ এর সময় কারাগারে বন্দী থাকা অবস্থায় কানাডীয়ান আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনজীবি পায়াম আখাবা ও উইলিয়াম স্লোনকে বাংলাদেশে এনে মামলা পরিচালনা করা ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ১/১১ এর মানবতাবিরোধী কর্মকান্ড তুলে ধরার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করি। আমার এই বলিষ্ঠ ভূমিকার কারণে নিজেও ১/১১ এর সময় নির্যাতিত হই।

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা:
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমান সরকার গঠনের পর দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার বর্গের নৃশংস হত্যা মামলার রায় কার্যকর করার উদ্যোগ নেন। উক্ত বঙ্গবন্ধুর হত্যা মামলায় সরকার কর্তৃক নিয়োজিত সহকারী এটর্নী জেনারেল হিসেবে নিষ্ঠার সাথে মামলা পরিচালনা করি এবং বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায় কার্যকর করার ক্ষেত্রে এ মামলার আইনজীবি হিসেবে ̧রুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করি। এর প্রেক্ষিতে ২০১৩ এর ডিসেম্বর মাসে জামাত শিবির ও বি এন পি দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়।

বিশেষ রাষ্ট্রীয় কাজে ভূমিকা :
• কওমী মাদ্রাসা সনদ প্রাপ্তি এবং জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে সার্বিক কায্ক্রম, (যা শুকরিয়া সমাবেশে বিশেষ ভাবে ব্যারিষ্টার এনামুল কবীর ইমনের নাম ঘোষনার মাধ্যমে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ)।

• বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট এর বিশেষ আইনজীবী।

• মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প ২০২১ প্রকল্পের A2i (Access to Information) এর শুরুতে আইন কর্মকর্তা হিসেবে এর কার্যক্রমে সার্বিক সহযোগিতা করি।

• ২০১১ সালে ভারতের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান NTPC Ltd এবং বাংলাদেশ বিদুৎ উন্নয়ন বোর্ড (BPDB) এর উদ্যোগে খুলনায় ১৩০০ মেঃওঃ কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্পের আইন উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করি।

ডেভিড বার্গম্যান
২০১৫ সালে আই.সি.টি কোর্ট এ ডেভিড বার্গম্যান এর ব্লগ এ আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল এর বিভিন্ন জাজমেন্ট নিয়ে কটুক্তির বিরদ্ধে Contempt Petition একজন আইনজীবী হিসেবে কাজ করি যার ফলশ্রুতিতে তার শাস্তি হয়। পরবর্তীতে যুদ্ধাপরাধীদের একজন নিয়োগপ্রাপ্ত ব্লগার হিসেবে তার কার্যক্রম বন্ধ হয়।

মাহফুজ এনাম
মাহফুজ এনাম এর একটি Aritcle New York Post এ পাবলিস করা হয় যা রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল ছিল, তার বিরুদ্ধে জিডি করে ব্যাবস্থা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করি।

আল জাজিরা
কাতার ভিত্তিক বিতর্কিত সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার্স মেন’, প্রতিবেদনটি ইউটিউব, টুইটার, ফেসবুকসহ সকল অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে অপসারণের নির্দেশনা চেয়ে রিট (রিট পিটিশন নং-১৮৩৯/২০২১) দায়ের করি। যার ফলশ্রুতিতে মাননীয় কোর্ট অনলাইন প্লাটর্ফম থেকে সরাতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেন।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন
• পাওয়ার গ্রীড কোম্পানী অব বাংলাদেশ লিঃ এর পরিচালক হিসেবে এবং লিগ্যাল এফেয়ার্স এর চেয়ারম্যান হিসাবে বাংলাদেশ ভারত ৫০০ মেগাওয়াট সাবষ্টেশন প্রকল্প বাস্তবায়নে সিমেন্স জার্মান ইন্সপেকশন এবং BPDP এর সাথে NTPC ইন্ডিয়া ২৬০০ মেগাওয়াট পাওয়ার ষ্টেশনের চুক্তি সফলতার সাথে বা ̄Íবায়ন করি।
• PGCB এবং KFW চুক্তি সম্পাদানে PGCB এর প্রতিনিধি হিসাবে জার্মানে KFW এর সাথে Loan Agreement সম্পাদানে সার্বিক সহযোগিতা করি।
• সুনামগঞ্জে এ সময়ের দাবি বিদ্যুৎ সাবষ্টেশন যা আমার প্রস্তাবনায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে PGCB১৩৩/৩২ কিলোভোল্ট গ্রীড সাবষ্টেশন কার্যক্রম শুরু করে, দীর্ঘপ্রতিক্ষার পর ৫ই ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সালে উদ্বোধনের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ বাসীর বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে স্থানীয় সরকার শক্তিশালী করণে ভূমিকা :
প্রশাসক নিয়োগ হওয়ার পর সুনামগঞ্জকে নানন্দিক সুনামগঞ্জ হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষে ̈ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ধুদ্ব হয়ে, সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন উন্নয়ন ও সেবা মূলক কাজে প্রশংসা অর্জন করি। জেলা পরিষদের নিয়োগের পর প্রথম অর্থবছর ২০১৩-১৪ তে প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার রাজস্ব বৃদ্ধি করি।
পরবর্তীতে ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে বিভিন্ন মার্কেট ও জয়েন্ট ভ্যানচার প্রজেক্টের আওতায় জেলা পরিষদ রাজস্ব প্রায় ১.৫০ কোটি বৃদ্ধি এবং ১২০ কোটি টাকা স্থায়ী রাজস্ব উন্নয়নের পরিকল্পনা বাস্তবায়ধীন।
• IT ট্রেনিং এর স্থাপনার মাধ্যমে ২ অর্থবছরে ৭০০ জন ছাত্রছাত্রীকে প্রশিক্ষন দেয়া হয় এবং পরবর্তীতে জেলা পরিষদের রাজস্ব থেকে প্রতি বছর ২০০০ ছাত্রছাত্রীকে IT প্রশিক্ষনের জন্য বড় ল্যাব স্থাপন করা হয়।
• সেলাই মেশিন ট্রেনিং সেন্টার স্থাপন ।
• বিদ্যুৎ ট্রেড সেন্টার স্থাপন।
• মেধাবী ছাত্র/ছাত্রী বৃত্তি প্রদানে ব্যাবস্থা করা হয়।
• শুদ্ধ বাংলা উচ্চারণ প্রশিক্ষন, আযান ও কেরাত প্রশিক্ষন।
• ড্রাইভিং প্রশিক্ষন।
• আর্নিং এবং লার্নিং প্রশিক্ষন ।
• বিদেশী সাহায্যার্থে জেলা পরিষদের আয়োজনে আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেট প্রশিক্ষণ ক্যাম্প।

জেলা পরিষদ প্রশাসক হিসেবে কর্মরত অবস্থায় বিশেষ কার্যাবলি সমূহঃ
১।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিশ্রুতি মহেষখলা মুক্তিযোদ্ধা সৃতিসৌধ ও টেকের ঘাট সৃতিসৌধ নির্মাণ।
২।সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতি সম্বলিত মোড়াল ও রূপ লাবণ্যের ফলক “নান্দনিক সুনামগঞ্জ” নির্মাণ।
৩।সুনামগঞ্জ জেলা সদর অভিমুখে আহসানমারা সেতু সংলগ্ন নির্মাণাধীন মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর্য।
৪। জগন্নাথপুর সহ দুটি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৬ টি শহীদ মিনার নির্মাণ।
৫। ডলুরা গণকবরে মুক্তিযোদ্ধার প্রতিকৃতি নির্মাণ।
৬। জেলা পরিষদের অর্থায়নে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি সম্বলিত মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নির্মাণ।
৭।বাউল সম্রাট শাহ্ আব্দুল করিম নির্মাণাধীন সমাধীসৌধ।
৮।সদর উপজেলার ডলুরা গণকবরের দেওয়াল, গেইট ও ছায়াকুঞ্জ নির্মাণ।
৯। সুনামগঞ্জ ঐতিহ্য জাদুঘরের সামনের প্রস্তাবিত নান্দনিক মঞ্চ।
১০।সদর উপজেলার আলিয়া মাদ্রাসার সামনের মসজিদ সংস্কার।
১১।সদর উপজেলার ইব্রাহিমপুর ও হাছন নগর জামে মসজিদ মসজিদ নির্মাণ ।
১২।দিরাই উপজেলায় মহিলা হোষ্টেল ও মন্দির নির্মাণ।
১৩।সদর উপজেলার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের প্রস্তাবিত মার্কেট নির্মাণ।
১৪। জেলা পরিষদ চত্ত্বরে নির্মাণাধীন লিলি গার্ডেন।
১৫। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় দৃষ্টি নন্দন যাত্রী ছাউনি সহ ১৮ টি যাত্রী ছাউনি নির্মাণ ।
১৬। বেদে পল্লী সংরক্ষন।

সহধর্মিনী
সহধর্মিনী ড. ব্যারিষ্টার ফারজানা শিলা বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টে আইন পেশায় নিয়োজিত আছেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব ওলভার হেম্পটন থেকে এলএল.বি (অনার্স) এবং পরবর্তীতে যুক্তরাজ্যের লিংকনস্ ইন থেকে ব্যারিষ্টার-এট-ল ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি লন্ডন স্কুল অব ল এন্ড কলেজ থেকে এলএল.এম. এবং হিউমান রাইটস ইন উইমেন এর উপর পিএইচডি
অর্জন করেন। বর্তমানে ব্যারিষ্টারফারজানা শিলা নান্দনিক ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান হিসাবে কাজ করে যাচ্ছেন। Internation Finance Corporation (IFC) এর আইনজীবি হয়ে কাজ করায় ̄ স্বীকৃতি স্বরূপ সনদ প্রদান করেন।এছাড়াও বিভিন্ন সরকারী, বেসরকারী ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আইনজীবি হিসাবেও দায়িত্ব পালন করছেন। আমাদের একমাত্র মেয়ে রাভিপ্রিয়া কবির ঢাকার গ্রীন হেরল্ড বিদ্যালয়ে একাদশ শ্রেনীতে অধ্যয়নরত।

বিশেষ গুনাবলীঃ
• প্রশাসক থাকাকালীন অবস্থায় জেনেভা হইতে Management and administration of public policies এবং Asian Institute of Technology হতে Management of Administration of Local Government Institution উপর সার্টিফিকেট অর্জন করি।
• Internation Finance Corporation (IFC) এর আইনজীবি হয়ে কাজ করায় স্বীকৃতি ̄ স্বরূপ সনদ প্রদান করেন।
• লন্ডনে থাকাবস্থায় ২০০১ সালে বৃটিশ গ্যাস কোম্পানীর বেস্ট কর্পোরেট এডভাইজার হিসাবে গোল্ডেনকাপ অর্জন করি। স্কুল জীবনে চিত্রাংকন, আবৃত্তি, গজল , বিতর্ক , বিজ্ঞান মেলা ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় প্রথমস্থান অর্জন করি।
• নান্দনিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ” নামে আমি একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলি যার মাধ্যমে গরিব শিশুদের পড়াশুনা সহ যাবতীয় ব্যাবস্থা প্রদান করে থাকি। বিশেষ করে দুস্থ ও অসহায় মহিলাদের আর্থিক সহায়তাসহ সাধারন মানুষের কাজ করে যাচ্ছি।
• লিগ্যাল এসিসটেন্স টু হেলপলেস প্রিজনারস (LAHP) এর সহ সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করি।